সবার জন্য অনার্স, মাস্টার্স, আর পিএইচডি ডিগ্রির প্রয়োজন নেই ,দক্ষতার উপর জোর দিচ্ছে শিক্ষামন্ত্রী



শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হলো জ্ঞান অর্জন করা । যে জ্ঞান অর্জন করে মানুষ তার মনুষ্যত্বের বিকাশ ঘটাতে সক্ষম হবে এবং নিজেকে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারবে । শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য অর্থ উপাজন কখনোই নয় । শিক্ষা হলো একটি আচরনগত পরিবতন । শিক্ষা এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে মানুষ জ্ঞান, দক্ষতা, মান, বিশ্বাস ও অভ্যাস অজন করতে পারে ।

তবে এই শিক্ষা দুই ধরনের হতে পারে একটি প্রাতিষ্ঠানিক অপরটি অপ্রাতিষ্ঠানিক । প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা হলো কোন নিদিষ্ট প্রতিষ্টান ও কারিকুলামের মধ্যে সীমাবদ্ব থাকা । অন্যদিকে অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা হলো প্রাকৃতিক শিক্ষা। বাস্তবতার মুখোমুখি হয়ে মানুষ যে জ্ঞান করে সেটাও অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার মধ্যে পড়ে ।

কোন কিছু জানাকে জ্ঞান বলে আর সেই জ্ঞানকে কাজে লাগানোই ক্ষমতা হল দক্ষতা । আর তাই শিক্ষার অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য হল দক্ষতা অর্জন এবং সুনাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলা । ভরি ভরি সার্টিফিকেট অর্জন করে দেশের কোন উন্নতি করা সম্ভম হয় না । দেশ ও জাতির উন্নতি সাধন করতে হলে সঠিক দক্ষতা দরকার ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, গতানুগতিক শিক্ষার পাশাপাশি কারিগরি, টেকনিক্যাল ও ভোকেশনাল শিক্ষার ওপর জোর দিচ্ছেন তারা ।

গত ১৬ জুলাই ”বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস ২০২০ উপলক্ষে ড্যাফোডিল পরিবার ও এটুআিই-এর যৌথ আয়োজনে কোভিড-১৯ এবং পরবতী সময়ের প্রতিরযোগিতামূলক চ্যালেঞ্জসমূহ মোকাবেলায় আমরা কি প্রস্তুত? শীষক এক অনলাইন সভায় শিক্ষামন্ত্রী এই কথা বলেন ।

সকল শিক্ষাথীদের স্বপ্ন ও তার পড়াশোনার মধ্যে যোগসূএ স্থাপনের জন্য কাজ করছে সরকার এবং শিক্ষামন্ত্রী আরো জানান শিক্ষা ব্যবস্থাকে এমন সাজানো হচ্ছে যাতে করে সকল শিক্ষাথীরা তাদের জীবন ও জীবিকার স্বপ্ন পূরণ করতে সক্ষম হয় ।

শিক্ষামন্ত্রী বলে, বাংলাদেশে মাদরাসা শিক্ষা, টেকনিক্যাল শিক্ষা, কওমী, সাধারন শিক্ষা, বাংলা ভাসন, ইংলিশ ভার্সন সকল ধারার শিক্ষাথীদের ‍কিছু আবশ্যিক দক্ষতা অর্জন করতে হবে। দক্ষতার মাধ্যমে দেশের সর্বাধিক উন্নতি করতে পারবে শিক্ষার্থীরা । আর তাই সরকার আবশ্যিক দক্ষতার উন্নয়ন এবং সব ধারার শিক্ষা ব্যবস্থায় দক্ষতা নিশ্চিত ও যাচাইয়ের জন্য একটি ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন ফ্রেমওয়াক প্রণনয় করতে যাচ্ছে ।

কন্টেন্ট রাইটার ঃ পপি আক্তার

Post a Comment

0 Comments