সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলো (ডিপিই)

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলো (ডিপিই)

এই প্রথম সবচেয়ে বড় আকারের একটি নিয়োগ প্রকাশ করতে যাচ্ছে “প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর”
প্রাথমিক শিক্ষক হিসেবে যারা নিয়োগ হতে ইচ্ছুক তাদের জন্য একটি সুর্বন সুযোগ আসছে খুবই শীঘ্রই। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর জানিয়েছে, করোনা পরিস্থিতি এখনো স্বাভাবিক নয় বলে, সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে আবেদন কাযক্রম এবং ২৬ হাজার প্রাক-প্রাথমিক ও  ১৪ হাজার প্রাথমিক শিক্ষক মোট ৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে ।

যারা যারা আবেদন করতে পারবেন:
নারী-পুরুষ উভয়ই আবেদন করতে পারবে ,তবে নারী-পুরুষের স্নাতক ডিগ্রি বাধ্যতামূলক করতে যাচ্ছে সরকার । আগে আবেদনের জন্য পুরুষ স্নাতক এবং নারী ’এইচএসসি ‘ ছিল । বয়সের সময় সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে (২১-৩০) বছর । তবে শুধু মাত্র মুক্তিযোদ্বার সন্তানরা ও প্রতিবন্ধীর জন্য বয়সসীমা  ৩২ বৎসর হবে ।

যে সকল নীতিমালা পরিবতন করা হয়েছে:
প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষক নিয়োগের ‍বিধিমালায় যোগ্যতা, বয়স ও পদ্দোন্নতি সহ পাঁচটি ক্ষেত্রে পরিবতন আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছে, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ।  নতুন বিধি মালা কার্যকর হলে শিক্ষক নিয়োগে আগের মতোই উপজেলা বা থানা ভিত্তিক হবে । তবে কেন্দ্রীয় ভাবে গঠিত সহকারি শিক্ষক নিবাচন কমিটির সুপারিশ ছাড়া কোন ব্যক্তিকে সহকারি শিক্ষক পদে সরাসরি নিয়োগ দেয়া যাবে না ।
বাংলাদেশের স্থায়ী বাসিন্দা না হলে প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ দেয়া যাবেনা । এমন কাউকে বিয়ে করেছে যিনি বাংলাদেশী নন বা বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যিনি বাংলাদেশের নাগরিক নন এমন ব্যক্তিকে ও শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া যাবেনা ।
সবচেয়ে বড় পরিবতন আসছে নারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতায় । নতুন নিয়মের অধীনে প্রাথমিক শিক্ষক পদে আবেদনে নারীদের ও কম পক্ষে স্নাতক পাস হতে হবে । উল্লেখ্য বতমান নিয়মে এইচ এস সি পাসেই শিক্ষক পদে আবেদন করতে পারেন নারীরা ।
সরাসরি প্রধান শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে এত ‍দিন স্নাতক পাস হলেই আবেদন করা যেত ।  নতুন বিধিমালার খসড়ায় এই শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতকোত্তর প্রস্তাব করা হয়েছে । এতদিন প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্যবয়সসীমা ছিল (২৫-৩৫) বছর । কিন্তু এখন এই পদটি দ্বিতীয় শ্রেণীতে উন্নীত হওয়ায় সরকারি কমকমিশনের  (পি্এসসি) নীতি মালার সঙ্গে সংগতি রেখে বয়স নিধারন করা হয়েছে (২১-৩০) বছর ।

প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মো: গিয়াস আহমেদ দাবি করেন , সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মান সম্মত শিক্ষক নিয়োগ দিতেই বিধি মালায় সংশোধন আনা হচেছ ।

লেখিকাঃ পপি আক্তার

Post a Comment

0 Comments